গরমকালে বাঙালির প্রিয় এঁচোড়ের তরকারি যা মাংসের স্বাদকে হার মানাবে

গরমের সময় সবসময় একই রান্না কারোর ই ভালো লাগে না। শিতকালে যেমন বিভিন্ন ধরনের সবজি বেশি পাওয়া যায়, গরমকালে তেমন সেইভাবে বিভিন্ন ধরনের সবজি পাওয়া যায় না। তাই এক ঘেয়ে রান্না থেকে বেরিয়ে এসে যদি এই এঁচোড়ের তরকারি মানুষের এক ঘেয়ে খাওয়া থেকে তৃপ্তি দায়ক খাওয়া যেতে পারে তবে কেমন লাগে, বেশ ভালো হয় ।

এঁচোড়ের তরকারি বেশির ভাগ  মানুষের ভালো লাগে। এটা নিরামিষ ও আমিষ দুই রকমের হয় তবে আমিষের দিনে যদি একটু চিংড়ী মাছ পরে তাহলে তো আর কোন কথাই নেই। তবে এবার দেখে নেওয়া যাক এই এঁচোড়ের সুস্বাদু রান্না করতে কি কি উপকরন লাগে।

উপকরনঃ-

৫০০ এঁচোড়

        ২ টা আলু

        ১ টা টমেটো

        ৩ টে মিডিয়াম সাইজের পিঁয়াজ

        ১/২ এঞ্ছি আদা ,৬ কোয়া রসন

        ২ চামচ হলুদ

        ১ চা চামচ লঙ্কা গুড়ো

        নুন পরিমান মত

        ২ টা তেজপাতা

        ১ টা  শুকনো লঙ্কা

        ২ টা গোটা-লবঙ্গ,এলাচ,দারচিনি

        সামান্য চিনি

       ১ চামচ গুর গরম মশলা

        ২০০ চিংড়ি

      সামান্য একটু ঘি।

এবার দেখে নেয়া যাক রান্না করার পধতি

পধতিঃ- প্রথমে এঁচোড় ভালো করে কেটে নিতে হবে। তবে হ্যাঁ কাটার আগে ১ টা ভাল টিপসি দিয়ে দিলাম। এঁচোড় কাটার পরে প্রচুর আঠা বেরোয় কিন্তু কাটার পরে যেখান থেকে আঠা বেরোয় সেখানে যদি পাতি লেবু ঘসে নেওয়া যায় তাহলে আর হাতে আঠা লাগবে না। যদিও আমরা হাতে অল্প সরষে তেলে একটু মেখে নিই। এবার ওই এঁচোড় গুলো ভালো করে ধুয়ে ১ টা প্রেসার কুকারে নুন ও হলুদ মিশিয়ে এঁচোড় গুলো ৪-৫ টা সিটি দিতে হবে।

 শুকনো  আলু গুলোকে এঁচোড়ের মতো সাম ঞ্জস্য রেখে ডুমো ডুমো করে কেটে নিতে হবে।তারপরে গ্যাস জ্বালিয়ে করাইতে ভালো করে তেল গরম করে নিতে হবে, ওই তেলে আলু গুল হাল্কা বাদামি রং করে ভেজে নিতে হবে। আলু নামিয়ে ওই তেলে চিংড়ি মাছ গুলো ভেজে নিয়ে নামিয়ে সিদ্দ করে রাখা এঁচোড় গুলো ভাজতে হবে।

      এর পরে কড়ায় তেল দিয়ে তার মধ্যে গোটা লবঙ্গ এলাচ, দারচিনি, তেজপাতা শুকনো লঙ্কা ফোড়ন দিতে হবে। তার পরে সামান্য একটু চিনি দিয়ে নেড়ে নিতে হবে কালার টা ভালো হবার জন্য।তার পরে পিয়াজ দিয়ে ভাজতে হবে ভাজা হয়ে গেলে তার মধ্যে একে একে আদা বাটা,রসন বাটা, টমেটো বাটা হলুদ গুঁড়ো লঙ্কা গুঁড়ো দিএ মশলা টা কসাতে হবে যতক্ষণ না পর্যন্ত মশলা থেকে তেল বের হয় এর পরে ভেজে রাখা আলু এঁচোড় দিয়ে ভালো করে মশলার সাথে কষাতে হবে। ৫-৭ মিনিট ধরে কষিয়ে  নিয়ে জল দিতে হবে। তবে হ্যাঁ জল টা আগে থেকে  গরম করে রাখতে হবে মিনিট দশেক পরে ঢাকা খুলে চিংড়ি মাছ গুলো দিয়ে নেড়ে চেরে আবার ৫ মিনিট ঢেকে রাখতে হবে।

      তার পর ১ চামচ ঘি আর ১ চামচ গুড়ো গরম মশলা দিয়ে আবার ৫ মিনিট ঢাকা দিয়ে রাখতে হবে। ব্যাস তৈরি আমাদের গরমের সুস্বাদু এঁচোড় তরকারি।

ক্রিস্পি চিকেন পকরা স্টেপ বাই স্টেপ

12 Best Geysers Water Heaters in India, Best for Toilet & Kitchen

0 0 votes
Article Rating
Subscribe
Notify of
guest
1 Comment
Oldest
Newest Most Voted
Inline Feedbacks
View all comments
P paul
P paul
1 month ago

Barir sobai kheye khub valo boleche.

1
0
Would love your thoughts, please comment.x
()
x